সারাদেশের সংবাদ

ভারতের পেঁয়াজ আসছে শনিবার

হিলি (দিনাজপুর) সংবাদদাতা : ভারত সরকার নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আবারও পেঁয়াজ আমদানি শুরু হচ্ছে। শনিবার থেকে দেশে পেঁয়াজ ঢুকবে বলে বন্দরের আমদানিকারকরা জানিয়েছেন। ইতোমধ্যে তারা কয়েকটি ব্যাংকে ৫-৬ হাজার টনের এলসি করেছেন।

এদিকে ভারতের পেঁয়াজ বাজারে আসার খবরে কেজিতে অন্তত ৭-৮ টাকা কমে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা জানান, গেল বছরের ১৪ সেপ্টেম্বর ভারত সরকার অভ্যন্তরীণ বাজারে সংকট ও মূল্যবৃদ্ধির অজুহাতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে। এর ফলে বাংলাদেশে পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা দেখা দিলে দাম কয়েকগুণ বেড়ে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা মিয়ানমার, পাকিস্তান, মিসর, তুরস্ক ও চীন থেকে বিপুল পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করেন। এ অবস্থায় বাজারে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করে। তখন প্রতি কেজি বিক্রি হয় ৫০-৬০ টাকার মধ্যে।

বাংলাহিলি বাজারের খুচরা বিক্রেতা মঈনুল ইসলাম, শাকিল হোসেন জানান, তারা শুনেছেন ভারত থেকে আজ শনিবার দেশে পেঁয়াজ আসছে। এই খবর বাজারে পৌঁছলে প্রতি কেজিতে ৭-৮ টাকা করে কমে গেছে।  শুক্রবার বিক্রি হয়েছে ৩০-৩২ টাকায়। গত বুধবার এই পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩৬-৪০ টাকায়।

হিলি স্থলবন্দরের উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল ভারত সরকার তা গত ২৮ ডিসেম্বর তুলে নিয়েছে। ফলে হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা ভারত থেকে নতুন করে ৫-৬ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিতে উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রে আবেদন করেছেন। আজ-কালের মধ্যে তাদের অনুমোদন দেওয়া হতে পারে।

এদিকে হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ জানান, ভারতের পেঁয়াজ বাজারে এলে ২০-২৫ টাকার মধ্যে পাইকারি বিক্রি হবে। তবে চাহিদার ওপর নির্ভর করে পেঁয়াজ আমদানি করা হবে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button