বরিশাল বিভাগের সংবাদ

গলাচিপার চাঁনখা ব্রিজের বেহাল দশা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি ইউনিয়নের চাঁনখা গ্রামের সন্নির খালের ব্রিজটির বেহাল দশা। গত এক দশক ধরে এ অবস্থা বিরাজ করলেও এটি পুনর্নির্মাণে এখন পর্যন্ত কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

এ ব্রিজ দিয়ে স্থানীয় জনগণ ছাড়াও পানপট্টি মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা একপ্রকার জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে।
এলাকাবাসীর পক্ষে সংশ্লিষ্ট দফতরে কয়েক দফা আবেদন করা হয়েছে। ওই গ্রামে বসবাসকারী পানপট্টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক গৌতম চন্দ্রসহ স্থানীয়রা জানান, যাতায়াতের ক্ষেত্রে আমরা অত্যন্ত দুর্ভোগের মধ্যে রয়েছি। এখানে একটি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ একান্ত আবশ্যক।

সরেজমিন দেখা গেছে, পানপট্টি ইউনিয়ন পরিষদ, কৃষি ব্যাংক, বিভিন্ন এনজিওর দফতর পানপট্টি সেন্টার বাজারে অবস্থিত। এ কারণে ৬টি গ্রামের মানুষকে সেন্টার বাজারে যাতায়াত করতে হয়। এছাড়া এ বাজারে কৃষিজাত পণ্য বিক্রি করতে এ ব্রিজটি পারাপার করতে হয়।

ব্রিজটি তুলাতলী, তালতলা সিকদার কান্দাসহ ৬টি গ্রামের মানুষের যাতায়াতের একমাত্র পথ। গলাচিপা উপজেলা, পটুয়াখালীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াতে এ ব্রিজটি পারাপার হতে হয়।

স্থানীয় দুলাল চন্দ্র, বিপুল হাওলাদার, নেপাল দত্ত, স্বপন দত্ত জানান, প্রচণ্ড ঝুঁকি নিয়ে ধানের আটি মাথায় নিয়ে পারাপার করতে হয়। যাতায়াত ছাড়াও উৎপাদিত কৃষিপণ্য নিয়ে কৃষকদের বেজায় দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

জানতে চাইলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, এ ব্রিজটি অত্যাধিক ঝুঁকিপূর্ণ। এটি নির্মাণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়েছে। বরাদ্দ এলেই এ ব্রিজটি নির্মাণ করার পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে পানপট্টি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম জানান, এ ব্রিজটির দুরাবস্থার কারণে এলাকার জনগণের ভোগান্তির কোনো শেষ নেই। এখানে একটি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ হওয়া একান্ত আবশ্যক।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button