বরিশাল জেলার সংবাদ

নগরীতে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

স্টাফ রিপোর্টার : বরিশাল নগরীর অমৃত লাল দে সড়কের নিজ বাসা থেকে গৃহবধূ তিশা কর্মকারের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় স্বামী বাপ্পি কর্মকারকে আটক করেছে পুলিশ। হত্যার আলামত পাওয়া গেছে দাবী পুলিশের, পরিবারের সদস্যরা বলছে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে গৃহবধূ তিশা।
শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে কর্মকার ভবনের তৃতীয় তলার ভাড়াটিয়া বাসার নিজ কক্ষে তিশা গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে দাবী পরিবারের স্বজনদের। তবে রাত থেকে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে দৌড়ঝাপ করলেও শনিবার দুপুরের দিকে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।
মৃত তিশা কর্মকার পিরোজপুরের স্বরুপকাঠি এলাকার বাঁশতলা গ্রামের সুকদেব কর্মকারের মেয়ে। তিন বছর পূর্বে অমৃত লাল দে সড়কের বাসিন্দা রবিন কর্মকারের ছেলে বাপ্পি কর্মকারের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবন্ধ হয়। জানা গেছে, বাপ্পি নেশাগ্রস্থ হওয়ায় তাদের পরিবারে কলহ লেগেই ছিলো।
তিশার ননদ রাখি কর্মকার জানান, দাদা বাপ্পি কর্মকার রাতে বাথরুমে যায় এবং সেখান থেকে ফিরে এসে দেখতে পায় বৌদি আত্মহত্যা করেছে।
বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের সহকারি কমিশনার মো. রাসেল জানান, হত্যার আলামত পাওয়া গেছে। মৃতের হাতে এবং গলায় দাগ পাওয়া গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পড়ে জানাজাবে হত্যা না আত্মহত্যা। আর এ কারনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী বাপ্পি কর্মকারকে আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button