রাজনীতির সংবাদ

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বানারীপাড়ায় ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

সুজন মোল্লা,বানারীপাড়া : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধ শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন উপ-মহাদেশের প্রাচীনতম সর্ববৃহৎ বাংলাদেশ ছাত্রলীগে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা ও পৌর শাখায় ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষা, শান্তি ও প্রগতির পতাকাবাহী এবং গৌরব, ঐতিহ্য ও সংগ্রামের সংগঠন ছাত্রলীগে এ উপজেলায় অশনি অশুভ সংকেতের সুর শোনা যাচ্ছে। সেই সুরের ধারাবাহিকতায় সংগঠনটির গৌরবের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে পৃথক ভাবে।

অপরদিকে এ উপজেলা ও পৌর শাখা ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ প্রায় ৪ বছর হওয়ার পরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে না পারায় বৃহৎ এই সংগঠনটি থেকে দিনে দিনে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন প্রকৃত শিক্ষার্থীরা। অন্যদিকে দুটি কমিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে দু’একজন বাদে সবাই বিবাহিত ও সন্তানের পিতা। ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মসূচিতে যে সকল কর্মীদের দেখা যায় তাদের মধ্য থেকে বেশির ভাগই বলতে পারবেন না সংগ্রামের সংগঠনটি কতো সালে কার হাত ধরে আত্মপ্রকাশ করেছিলো।

এদের মধ্য থেকে আবার অনেককে অন্য ছাত্র সংগঠনের কর্মসূচিতেও দেখা যায়। সর্বপরি ছাত্রলীগের মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে এখানে সংগঠনে নতুন নেতৃত্বের আবির্ভাব না হওয়ায় কর্মসূচিতে লোক আনার প্রতিযোগীতা সৃষ্টি হয়েছে। যে প্রতিযোগীতায় মূলত সংগঠনটির কোন প্রকার আদর্শিক লাভ হচ্ছেনা।

এমনি মতামত পাওয়া গেছে তৃণমূলের কর্মীদের কাছ থেকে। এরমধ্য দিয়েই ঐতিহ্য বহন করা সংগঠন ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পাল্টাপাল্টি ভাবে উদযাপন করা হয়েছে এখানে। সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফোরকান আলী হাওলাদারের নেতৃত্বে একটি র‌্যালী পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. সুমন হোসেন মোল্লা, বর্তমান যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান উজ্জ্বল সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

একই সময় উপজেলা ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ও পৌর শাখার দু’জন নেতার নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি ও নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে দুপুর সাড়ে ১২টায় অপর একটি র‌্যালী পৌর শহর প্রদক্ষিণ করে। একই সময় একই স্থানে দুটি পাণ্টাপাল্টি কর্মসূচি চলার সময় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ছিলো সর্তক অবস্থানে। শেষ পর্যন্ত কোন প্রকার অপ্রিকর ঘটনা ছাড়াই দুটি কর্মসূচির সুভম হয়।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button