বরিশাল বিভাগের সংবাদ

বাউফলে সংঘর্ষে নিহত ২

অতুল পাল, বাউফল : পটুয়াখালীর বাউফলের কেশবপুর ইউনিয়নের কেশবপুর বাজারে সংঘর্ষের জেরে আজ রোববার সন্ধায় নতুন করে সংঘষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে ২ জন মারা গেছেন এবং ৫ জন আহত হয়েছে বলে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় সূত্র নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ৩১ জুলাই শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে কেশবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলামের সাথে পূর্বের বিরোধ নিয়ে কেশবপুর ইউপি সদস্য জিয়াউদ্দিন সুজন, কেশবপুর ইউনিয়ন যুব লীগের সভাপতি জহিরুল হক একই ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের যুবলীগ সভাপতি বশির হাওলাদার এবং কেশবপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিদের সাথে সংঘর্ষ হয়। ওই সংঘর্ষে রফিকুল ইসলাম, বশির হাওলাদার এবং ইব্রাহিম গুরুতর আহত হয়। চিকিৎসার জন্য রফিকুল ইসলামকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং বশির ও ইব্রাহিমকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। আজ রোববার রফিকুল ইসলাম বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাড়ি আসলে সন্ধার সাতটার দিকে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে লাঠিসোটা ও রাম দা নিয়ে কোপাকুপি হয়। কোপাকুপিতে মো. জালাল উদ্দিন মিয়ার ছেলে এবং কেশবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কেশবপুর কলেজের অধ্যক্ষ সালেহ উদ্দিন পিকু’র ছোট ভাই রাকিব উদ্দিন রোমান (৩৩) ও মোনায়েম তালুকদারের ছেলে ইশাত(২৪)সহ ৫/৬ জন গুরুতর আহত হয়। রাকিব উদ্দিন রোমান এবং ইশাতকে রাত নয়টার দিকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে রাত নয়টা ২০ সময় রাকিব উদ্দিন রোমান মারা যায়। অপরদিকে ইশাতকে মৃত্যু অবস্থায়ই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়েছে বলে হাসপাতালের চিকিৎসক আখতারুজ্জামান জানান। এদিকে আহতদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না এনে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জরিত সন্দেহে চারজনকে আটক করা হয়েছে বলে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button