বরিশাল জেলার সংবাদ

তানজিলা হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

জসিম উদ্দিন : বরিশালের মেয়ে ৩ মাসের অন্তসত্বা তানজিলাকে লক্ষিপুর স্বামীর বাড়িতে নির্যাতন করে হত্যার প্রতিবাদ ও হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে বরিশালে মানববন্ধন হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় বরিশালের সর্বস্তরের নাগরীকবৃন্দের ব্যানারে স্বজন, সাবেক সহপাঠি শিক্ষার্থী, এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা এই মানববন্ধনে অংশ নেয়। এসময় তারা হত্যার সাথে জড়িত স্বামী সহ সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং ফাঁসির দাবী জানান।
এসময় তানজিলা রহমান খানের হত্যাকারীদের বিচার চেয়ে বক্তব্য রাখেনÑ তানজিলার বৃদ্ধ বাবা মো, সাইদুর রহমান,সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ বরিশাল জেলা আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার ইমরান হাবীব রুমন, জেলা সদস্য সচিব ডা. মনিষা চত্রবর্তী প্রমুখ।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল সরকারী মহিলা কলেজ, বরিশাল জমজম হেলথ ইনষ্টিটিউট, ঢাকা ইডেন কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী ও বরিশালের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের লোক কণ্ঠ শিল্পি ও বরিশাল নগরীর ভাটিখানার মেয়ে তানজিলা রহমান। ২০১৬ সালে লক্ষিপুর জেলার, রামগঞ্জ উপজেলার সাইদেরখিল গ্রামের মোল্লা বাড়ির ছেলে জহিরুল ইসলামের সাথে তানজিলার বিয়ে হয়। ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে সামাজিক আনুষ্ঠিকভাবে তানজিলাকে শশুর বাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে যায়। ডিসেম্বর মাসে জহিরুল বেকার দাবী করে তানজিলার কাছে ৫লক্ষ টাকা দাবী করে। মেয়ের শান্তির কথা চিন্তা করে সাইদুর ২লক্ষ টাকা দেয়া হয়। বাকী ৩ লক্ষ টাকার জন্য শশুর-শাশুরী, চাচী শাশুরী ও দেবরের প্ররোচনায় নির্যাতন শুরু হয় তানজিলার উপর। দাবীকৃত টাকার জন্য স্বামী জহিরুল ইসলাম জনি ও শশুর-শাশুরী, চাচী শাশুরী, দেবররা মিলে সুপরিকল্পিতভাবে শারিরীক নির্যাতন করে তাকে হত্যা করে।
এর আগে গত ৮ই আগস্ট ২০২০ সকালে তানজিলার স্বামী জহিরুল বরিশালে ফোন করে জানায় তানজিলা চেয়ার থেকে পড়ে অচেতন হয়ে গেছে আমরা হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি। সংবাদ পেয়ে তানজিলার ভাই ও ২ মামা সহ ৯জন তানজিলার স্বামীর বাড়িতে যাবার পূর্বে স্থানীয় থানায় বিষয়টি অবহিত করে। পুলিশ ওইদিন বেলা ৩ টারদিকে তানজিলার লাশ উদ্ধার করে এবং স্বামী জহিরুল ইসলামকে আটক করে। এব্যাপারে তানজিলার ভাই সাইফুর রহমান ৯ই আগস্ট বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ##

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button