বরিশাল জেলার সংবাদ

ড্রাম ভর্তি নারীর লাশ উদ্ধার

গৌরনদী প্রতিনিধি : ঢাকা বরিশাল মহাসড়কের ভুরঘাটা বাসট্যান্ডে যাত্রিবাহী বাসের মধ্যে থেকে ড্রাম ভর্তি অজ্ঞাত নারীর (৩০) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে লাশটি উদ্ধার করেন গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের সদস্যরা।

উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। ওই বাসের চালক ও হেলপার এবং যেখান থেকে ড্রামটি বাসে উঠানো হয়েছে সেই গড়িয়ারপাড়ের কাউন্টার শ্রমিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে।

এদিকে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য শনিবার সকালে বরিশাল মেবাচিম মর্গে প্রেরণের পাশাপাশি পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। নিহত নারীর পরিচয় উদঘাটন এবং অভিযুক্ত হত্যাকারীদের শনাক্ত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন গৌরনদী থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় আর সি পরিবহন নামে স্থানীয় রুটের একটি বাস নগরীর নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে জেলার সীমান্তবর্তী ভূরঘাটার উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো। সন্ধ্যা ৭ টায় গড়িয়ারপাড় স্ট্যান্ডে ওই বাসের হেলপারের সহায়তায় বাসের ছাদে একটি প্লাস্টিকের ড্রাম উঠায় আনুমানিক ৪৫ বছর বয়সের এক ব্যক্তি।

ড্রামে কাঁচের জিনিস রয়েছে বলে সুপারভাইজার ও হেলপারকে জানিয়েছিল ওই যাত্রী। রাত ৯ টার দিকে বাসটি ভূরঘাটা বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছলে ড্রামের মালিক ভ্যান আনার কথা বলে নেমে যায়। এরপর দেড় ঘন্টা অতিবাহিত হলেও ড্রামের মালিক ভ্যান নিয়ে ফিরে না আসায় বাসের চালক ও হেলপারের সন্দেহ হয়। তারা ড্রামটি নামিয়ে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে মুখ খুললে ভেতরে বোরকা পরিহিত আনুমানিক ৩০ থেকে ৩৫ বছর বয়সের এক নারীর মৃতদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়।

গৌরনদী থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, লাশের সুরতহাল রিপোর্টে ওই নারীর মাথার পেছনের দিকে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে হত্যা করে লাশ গুম করতে ড্রামে ভরে বাসের ছাদে তুলে দিয়েছে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ###

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button