বরিশাল বিভাগের সংবাদ

ক্ষমা চাইলেন সেই পাখির ঘাতক বৃদ্ধ জালাল

ঝালকাঠি প্রতিনিধি : নিজের অজ্ঞতা স্বীকার করে হাতজোড় করে সকলের কাছে ক্ষমা চাইলেন ঝালকাঠি নলছিটির বাবুই পাখি হত্যাকারী সেই বৃদ্ধ দিনমজুর জালাল সিকদার (৬০) । ‘পাখির বাচ্চা মেরে ফেলা যে আইনগত অপরাধ তা আমি জানতাম না’ উল্লেখ করে ভৈরবপাশা ইউনিয়নের ঈশ্বরকাঠী গ্রামের বাসিন্ধা জালাল সিকদার জীবনে এমন অপরাধ আর করবে না অঙ্গীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।
এঅবস্থায় তার ভূল স্বাকার ও অঙ্গীকার বিবেচনায় উপস্থিত এলাকাবাসীর অনুরোধে তাকে সতর্ক করে ছেড়ে দেন নলছিটি উপজেলার বিজ্ঞ নির্বাহী অফিসার রুম্পা সিকদার।
অনলাইন মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাবুই পাখির ছানা মেরে ফেলার বিষয়টি জানতে পেরে নলছিটি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুম্পা সিকদার অভিযুক্ত জালাল সিকদারকে শনিবার রাতে তার কার্যালয়ে ডেকে আনেন। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুম্পা সিকদার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাখাওয়াত হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলী আহমেদসহ ভৈরবপাশা ইউনিয়নের গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য গত শুক্রবার সকালে নলছিটির ভৈরবপাশা সিদ্দিক মার্কেট সংলগ্ন একটি তাল গাছে কিছু বাবুই পাখির বাসায় বাঁশের মাথায় আগুন জ্বালিয়ে লাগিয়ে দিলে প্রায় অর্ধশতাধিক বাচ্চা পুড়িয়ে হত্যা করে। ঘটনা অনলাইন মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পরলে বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায়। এক পর্যায়ে বিষয়টি উপজেলার নির্বাহী অফিসার রুম্পা সিকদারসহ প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হয়।
অশিক্ষিত এ বৃদ্ধ জালাল সিকদার আইন জানেন না ও বিষয়টি অপরাধ হয়েছে বলে স্বীকার করেন ভবিষ্যতে কখনোই এমনটি করবে না বলে সকলের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button